পিস্তল তাক করে ধরেছে ছিনতাইকারী। সঙ্গে মূল্যবান জিনিসপত্র যা আছে, তা–ই বের করে দিতে বলছে। সরাসরি সংবাদ সম্প্রচারের সময় সাংবাদিক ও তাঁর সহযোগীদের এই ছিনতাইয়ের শিকার হতে দেখা যায়। অনেকেই একে কোনো ছবির দৃশ্য বলে ভুল করতে পারেন। কিন্তু বাস্তব এ ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ইকুয়েডরে।

গত সপ্তাহে ছিনতাইকারীর কবলে পড়ার ভয়াবহ এই অভিজ্ঞতা হয়েছে দেশটির ক্রীড়া সাংবাদিক ডিয়েগো অর্ডিনোলা ও তাঁর সহকর্মীদের। সাধারণত কাউকে নির্জনে পেলে ছিনতাইকারী এতটা সাহস দেখায়। কিন্তু টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারের সময় ছিনতাইয়ের এমন ঘটনা বিরল।

নিউইয়র্ক পোস্ট–এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ডিয়েগো অর্ডিনোলা দেশটির ডিরেকটিভি স্পোর্টস চ্যানেলে কাজ করেন।

গত সপ্তাহে গায়াকুইল শহরের ইস্তাদিও মনুমেন্টাল স্টেডিয়ামের বাইরে থেকে সরাসরি সংবাদ সম্প্রচার করছিলেন। এ সময়ই পিস্তল উঁচিয়ে তাঁর দিকে এগিয়ে আসে ছিনতাইকারী। মুখে মাস্ক পরা ওই ছিনতাইকারী সরাসরি পিস্তল তাক করে ডিয়েগোর মুখে। চিৎকার করে সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন বের করে দিতে বলে। এরপর ছিনতাইকারী হাত দিয়ে টেলিভিশনের বুম সরিয়ে পিস্তল তাক করে ক্যামেরাম্যান ও অন্য ক্রুদের দিকে। তাঁদের সঙ্গে থাকা অর্থ ও মোবাইল ফোন বের করে দিতে বলে।

দ্রুত সময়ের মধ্যে একটি ফোন হাতিয়ে নিয়ে দৌড় দেয় ওই ছিনতাইকারী। ওই সময় ক্যামেরা চালু থাকায় ছিনতাইয়ের পুরো ঘটনাটি রেকর্ড হয়ে যায়। পরে ওই ভিডিও ইনস্টাগ্রামে আপলোড করেন ডিয়েগো।

সাংবাদিক ডিয়েগো বলেন, ‘আমরা শান্তিতে ঠিকমতো কাজও করতে পারি না। মনুমেন্টাল স্টেডিয়ামের বাইরে বেলা একটার দিকে এই ঘটনা ঘটেছে।’

নিউজউইক–এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ছিনতাইকারী ডিয়েগোর টিমের একজন সদস্যের একটি ফোন নিতে পেরেছে। ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ারের পর থেকে ভাইরাল হয়ে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.