বলিউডের নামকরা নির্মাতা করণ জোহরের বাড়ির পার্টিতে মা’দকের ছড়াছড়ি ছিল। রণবীর সিং, দীপিকা পাড়ুকোন, শাহিদ কাপুর, ভিকি কৌশল, বরুণ ধাওয়ানসহ বলিউডের প্রথম সারির অজস্র অভিনেতা-অভিনেত্রী সেই পার্টিতে নে’শায় বুঁদ হয়ে ছিলেন। ঢুলু ঢুলু চোখ ছিল সবার। মুখ-চোখে মাদকের প্রভাব স্পষ্ট ছিল। এমনকী, ভিকি কৌশলের সামনে রাখা টেবিলে পাউডারের মতো দেখতে মা’দক দ্রব্য থাকার ভিডিও এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল।

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে একাধিক সংবাদমাধ্যম, বহু জায়গায় সেই ভিডিও ফুটেজ চলেছে। দাবি করা হয়েছে, সেই পার্টি ছিল করণ জোহরের বাড়িতে। আর সেই পার্টিতে মাদকের ছড়াছড়ি ছিল বলেও অভিযোগ উঠছিল।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃ’ত্যুর পর থেকে অভিযোগের একাধিক আঙুল করণ জোহরের দিকে। বলিউডে তিনি নেপোটিজম-এর প্রচারক বলে অভিযোগ।

পরিস্থিতি অসহনীয় হয়ে ওঠায় এবার মুখ খুলতে বাধ্য হলেন করণ। তিনি টুইটারে এক পাতার বিবৃতি প্রকাশ করেছেন। সেখানে দাবি করেছেন, তিনি কোনোদিন মা’দক সেবন করেননি। কখনই কাউকে মা’দক সেবন করার ব্যাপারে প্ররোচনা দেননি। তার বাড়িতে কখনও কোনও পার্টিতে মা’দকের ছড়াছড়ি হয়নি। যেসব ফুটেজ মিডিয়া দেখাচ্ছে সেগুলি সব ভুয়া। তার সঙ্গে মাদকযোগের যে তথ্য তুলে ধরা হচ্ছে সেগুলি সব মিথ্যা। ২০১৯ সালেও তিনি এমন অভিযোগ মিথ্যে বলে দাবি করেছিলেন। এদিন তারও উল্লেখ করলেন করণ। করণ বলেছেন, একের পর মিথ্যা অভিযোগ ও ভুল খবরে আমার, ধর্ম প্রোডাকশন ও আমার পরিবারের ওপর প্রভাব পড়ছে। আমাদের ঘৃণা ও উপহাসের পাত্র হিসাবে দেখা হচ্ছে।

করণ আরও বলেছেন, একাধিক মিডিয়া চ্যানেল দেখাচ্ছে, ক্ষিতিজ প্রসাদ নাকি ধর্ম প্রোডাকশনের ম্যানেজার। এটা সত্য নয়। এমনকী অনুভব চোপড়াও ধর্ম প্রোডাকশনের কর্মী নয়। আমি তো অনুভবকে ব্যক্তিগতভাবে চিনিও না। ২০১১ থেকে ২০১২-র মধ্যে একটি প্রোজেক্ট-এ সেকেন্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর হিসাবে দুমাসের জন্য ধর্ম প্রোডাকশনের সঙ্গে কাজ করেছিল অনুভব। তার পর আর কখনও কাজ করেনি। ক্ষিতিজ ২০১৯ সালে একটি প্রোজেক্টে কাজ করেছিল ধর্ম প্রোডাকশনের সঙ্গে। কিন্তু সেই প্রোজেক্ট রিলিজ করেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.