এই মুহূর্তে বলিউডের অন্যতম ট্রেন্ডিং অভিনেত্রী। ছোট-বড়-মাঝারি সব ধরনের ছবিতেই নোরার আইটেম ডান্স এখন মাস্ট। কিছুদিন আগেই আর্থিক প্রতারণা সংক্রান্ত মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অভিনেত্রীকে ডেকে পাঠিয়েছিল ED।

তবে এবার এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। ব্যবসায়ী সুকেশ চন্দ্রশেখর দাবি করেছেন, তিনি নোরাকে একটি গাড়ি উপহার দিয়েছিলেন। আর তারপর থেকেই শুরু হয়েছে জলঘোলা।

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

২০০ কোটি টাকার আর্থিক প্রতারণার অভিযোগে বর্তমানে সস্ত্রীক জেলবন্দি সুকেশ। সম্প্রতি আদালতে পেশ করা হয় তাঁকে। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তোলাবাজিতে অভিযুক্ত সুকেশ দাবি করেন, তিনি নোরা ফতেহিকে একটি গাড়ি উপহার দিয়েছিলেন। সাংবাদিকরা গাড়ির নাম জানতে চাইলে তাঁর জবাব, ‘নোরাকে গিয়ে জিজ্ঞাসা করুন’।

সম্প্রতি Nora একটি BMW গাড়ি কিনেছিলেন বলেই খবর। অভিনেত্রী বিভিন্ন সময় ওই গাড়ি করে মুম্বই বিভিন্ন জায়গা দেখা গিয়েছে। তবে কী সেই গাড়িই নোরাকে উপহার দেন সুকেশ? উত্তর মেলেনি।

২০০ কোটি টাকার আর্থিক তছরুপের অভিযোগ ছাড়াও আরও ২০টি তোলাবাজির মামলা রয়েছে সুকেশের বিরুদ্ধে। ED আধিকারিকদের দাবি, জেলের ভিতর থেকেই একাধিক চক্র চালাচ্ছেন ওই ব্যবসায়ী।

সম্প্রতি অভিনেত্রী নোরা ফাতেহির টিমের তরফ থেকে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়, ‘মিডিয়া ও বিভিন্ন মহলে যে ধরনের খবর রটেছে তা ভিত্তিহীন। নোরাকে পরিস্থিতির শিকার করা হয়েছে, তিনি এই কেসে আধিকারিকদের সঙ্গে যথা সম্ভব সহযোগিতা করার চেষ্টা করছেন।’

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন আগে ED আধিকারিকরা চন্দ্রশেখরের চেন্নাইয়ের বাড়িতে হানা দিয়েছিলেন। জানা যাচ্ছে, প্রাসাদের আকারের ওই বাংলোর বাজারমূল্য ১০ কোটি টাকারও বেশি। চেন্নাইয়ের সমুদ্র সৈকতের ধারে ওই বাড়িতে নাকি বিলাসের সমস্ত সরঞ্জাম মজুত রয়েছে। মিনিবার থেকে মুভি থিয়েটার, হোম জিম থেকে পুল এবং বিলাসবহুল রুফটপ এরিয়া সবই রয়েছে ওই বাংলোয়।

এই একই মামলায় সম্প্রতি তলব করা হয়েছিল বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজকে। ২৫ সেপ্টেম্বর এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের দিল্লির দফতরে গিয়েছিলেন নায়িকা। তাঁকে পাঁচ ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় বলেই খবর।

সলমান ঘনিষ্ঠ অভিনেত্রীকে কেন্দ্রীয় সংস্থার তলবের খবর প্রকাশ্যে আসামাত্র ওই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল তাহলে কি আর্থিক তছরুপের সঙ্গে জড়িত জ্যাকলিন? যদিও গোয়েন্দা সংস্থা তখনই স্পষ্ট করে, অভিনেত্রী ঘটনায় অভিযুক্ত নন। সুকেশ চন্দ্রশেখর মামলার সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যই তলব করা হয়েছিল ‘কিক’ খ্যাত অভিনেত্রীকে।

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.