ঘড়ির কাঁটা রাত ১২ টা ছুঁলেই মে মাসে ঢুকে যাবে ক্যালেন্ডার। এই মাসে অনেক কিছুই বদল হতে চলেছে দেশে। এর মধ্যে যেমন আগামিকাল থেকে শুরু হতে চলা দেশব্যাপী তৃতীয় পর্যায়ের টিকাকরণ রয়েছে, তেমনই ব্যাঙ্কিং সংক্রান্ত নিয়মে কিছু অদল-বদল আসতে চলেছে। এ ছাড়াও রান্নার গ্যাসের দামেও পরিবর্তন দেখা যেতে পারে। মে মাস শুরু হওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে দাঁড়িয়ে পাঠকদের সামনে আমরা এমন ৭ টি বিষয় তুলে ধরতে চলেছি যা আগামী মাস থেকে বদলে যেতে চলেছে এবং সরকারি পাঠকদের জীবনে তা প্রভাব ফেলবে।
১. শুরু হচ্ছে প্রাপ্তবয়স্কদের টিকাকরণ

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় তৃতীয় পর্যায়ের টিকাকরণ শুরু হচ্ছে দেশে। ১৮ উর্ধ্ব সকলকে আগামিকাল থেকে ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু হবে। ভ্যাকসিন নিতে গেলে কোউইন পোর্টালে নাম নথিভুক্ত করতে হবে। গত ২৮ এপ্রিল থেকেই সেই কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। যদিও বেশিরভাগ রাজ্যই ভুগছে ভ্যাকসিন সঙ্কটে।
২. দ্বিগুণ হচ্ছে স্বাস্থ্যবিমার অঙ্ক

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জেরে আরোগ্য সঞ্জীবনী পলিসির বিমা গ্রাহকদের বিমার অর্থমূল্য বাড়িয়ে ৫ লক্ষ থেকে ১০ লক্ষ টাকা করার সিদ্ধান্ত নিয়ে বিমা নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইআরডিএআই। পয়লা মে থেকে নতুন নির্দেশ কার্যকর হচ্ছে। ১ এপ্রিল থেকে যে স্বাস্থ্যবিমার জন্য মাথাপিছু ৫ লক্ষ বরাদ্দ ছিল, সেটাই বাড়িয়ে ১০ লক্ষ করা হচ্ছে মে মাস থেকে।
৩. বদলে যাবে রান্নার গ্যাসের দাম

প্রত্যেক মাসের প্রথম দিন রান্নার গ্যাসের দাম বদল করে তেল কর্পোরেশন সংস্থাগুলি। ফলে আগামিকাল থেকে রান্নার গ্যাসের দামে পরিবর্তন আসবে। বর্তমানে রাজধানীতে ১৪.২ কেজির ভর্তুকিযু্ক্ত গ্যাসের দাম ৮০৯ টাকা। গত কয়েক মাস ধরেই লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে রান্নার গ্যাসের দাম। ফলে এ বার মূল্য বৃদ্ধির সূচক কোনদিকে যায় সেদিকে নজর থাকবে।
৪. নিয়মে একাধিক বদল আনছে অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক

সেভিংস অ্যাকাউন্ট যাদের সেই সকল গ্রাহকদের জন্যও নিয়মে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন আনছে অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। পয়লা মে থেকে কয়েকটি নির্দিষ্টবার টাকা তোলার পর ফের টাকা তুলতে গেলে অতিরিক্ত কর ধার্য করা হবে। এ ছাড়াও সেভিংস অ্যাকাউন্ট যাদের তাঁদের অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্সের পরিমাণ বৃদ্ধি করা হয়েছে। যদিও ন্যূনতম ব্যালেন্স বজায় না রাখতে পারলে জরিমানা কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

৫. টাকা তোলার ক্ষেত্রে বাড়ছে করের মাসুল

নির্দিষ্ট কয়েকবার টাকা তোলার পর বর্তমানে এটিএম বা ব্যাঙ্ক থেকে ১০০০ টাকা তোলা হলে অতিরিক্ত ৫ টাকা কর ধার্য করত অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। তবে আগামিকাল থেকে তা বাড়িয়ে ১০ টাকা করা হচ্ছে।
৬. বাড়ছে ন্যূনতম ব্যালেন্সের পরিমাণও

এতদিন অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের সেভিংস অ্যাকাউন্টে কমপক্ষে ১০ হাজার টাকার ন্যূনতম ব্যালেন্স বজায় রাখতে হত গ্রাহকদের। এ বার সেটাই বাড়িয়ে ১৫ হাজার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যদি সেটা না হয় সে ক্ষেত্রে প্রতি ১০০ টাকা কমে ১০ টাকা করে মাসুল ধার্য করবে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ।
৭. অব্যবহৃত এবং পরিক্তত্য অ্যাকাউন্টগুলি থেকে তোলা হবে জরিমানা

যে স্যালারি অ্যাকাউন্টগুলি ছয় মাসের বেশি পুরনো এবং শেষ একমাসে কোনও টাকা ঢোকেনি, সেগুলির ক্ষেত্রে ১০০ টাকা করে জরিমানা কেটে নেওয়া হবে। এবং যে সেভিংস অ্যাকাউন্টগুলি ১৭ মাস ধরে ব্যবহার হয় না, ১৮ তম মাস থেকে সেই অ্যাকাউন্টগুলির উপরও মাসিক ১০০ টাকার জরিমানা কাটা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.