সম্প্রতি বেশ কিছুদিন ধরেই ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার জন্য সংবাদ শিরোনামে রয়েছেন জিয়নকাঠি খ্যাত অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। প্রায় অনেক ছোট থেকেই এই মারণ রোগের সঙ্গে লড়াই চালিয়ে আসছেন অভিনেত্রী।

সম্প্রতি গত ফেব্রুয়ারি মাসে আবারও ফুসফুসে টিউমার হওয়ার খবর পাওয়ার পর দিল্লির অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। জানা যায় তার এই টিউমারটিও ক্যান্সারাস।

এরপর প্রথম সেশনের কেমো নেওয়ার পর তার সম্পূর্ণ চুলগুলি উঠে যায়। গতকাল নিজের কেশহীন চেহারার একটি ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছেন ঐন্দ্রিলা। একটু আলাদা রকমের লাগলেও তার এই রূপের প্রশংসা করেছেন তার অনুরাগীরা।আবার অনেকেই তাকে এই অবস্থায় দেখে দুঃখ প্রকাশ করে সাহস জোগানোর চেষ্টা করেছেন। তবে আপাতদৃষ্টিতে ঐন্দ্রিলা শর্মা কে দেখে মনে হয় না তাকে কোনোভাবেই সাহস জোগানোর প্রয়োজন রয়েছে।

কারণ ইতিমধ্যেই দীর্ঘ লড়াই চালিয়ে নিজের সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন অভিনেত্রী। এমতাবস্থায় সোশ্যাল মিডিয়ায় এদিন একটি আশ্চর্যজনক ছবি শেয়ার করেন ঐন্দ্রিলা। হয়তো এই ছবিটি সম্পর্কে জানতে পারলে আপনিও বন্ধুত্বের নতুন মানে বুঝতে শিখবেন। দেখা গিয়েছে, ক্যান্সারাক্রান্ত কেশহীন ঐন্দ্রিলাকে সঙ্গ দিতে গিয়ে নিজের সমস্ত চুল কেটে ন্যাড়া হয়ে গিয়েছেন তার বান্ধবী পারমিতা সেনগুপ্ত।

গতকাল নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে ঐন্দ্রিলা নিজের বান্ধবী পারমিতার কেশহীন ছবি শেয়ার করে ক্যাপশনে লেখেন,”কিছু বন্ধুত্ব এরকম হয়”। এমনকি এই ঘটনার পর নিজেকে শব্দহীন বলেও দাবি করেন ঐন্দ্রিলা।প্রসঙ্গত হাসপাতালে ভর্তি থাকাকালীন প্রায় সব সময়তেই নিজের প্রেমিক সব্যসাচীকে পাশে পেয়ে ছিলেন অভিনেত্রী।ঐন্দ্রিলাকে খাওয়ানো থেকে শুরু করে তাকে অনবরত সাহস যোগানো সবকিছুতেই অনবদ্য ভূমিকা রয়েছে ‘বামাখ্যাপা’ খ্যাত অভিনেতা সব্যসাচীর।নেট দুনিয়ায় বেশ কিছু প্রতিবেদনও ভাইরাল হয়েছে এই অসাধারণ জুটিকে নিয়ে।কিভাবে এত মারণ রোগের সাথে লড়াই করার পরেও নিজের সমস্ত সাহস সঞ্চয় করে এগিয়ে চলেছেন ঐন্দ্রিলা! তা অনেকেই বুঝতে পেরেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.