বলিউডের বিগ-বি অমিতাভ বচ্চন ও বিখ্যাত অভিনেত্রী রেখার প্রেম কাহিনী প্রায় সকলেই শুনে এসেছে। তাদের প্রেম কাহিনী কিছুটা রোমিও-জুলিয়েটের মতোই বিখ্যাত বলা যেতে পারে। যখন ওই দুটো মন একে অপরের কাছে আসতে চাইছিলো ঠিক তখনই পরিচালক যশ চোপড়া বাধা দেয় তাদের। কারণ অমিতাভ বচ্চন তখন আগে থেকেই বিবাহ বন্ধনে বেঁধে ছিলেন। বলিউডের বিগ-বি এর সাথে জয়া ভাদুড়ীর বিবাহটি হয়েছিলো ১৯৭৩ সালের জুন মাসের ৩ তারিখে। প্রথম সন্তান শ্বেতা আসে ১৯৭৪ সালে এবং দ্বিতীয় সন্তান অমিতাভ আসে ১৯৭৬ সালে।

১৯৭৬ সালে অভিষেক আসার বছরেই অমিতাভের জীবনেও আসে তার নতুন প্রেম। তাদের প্রথম দেখা হয় ওই সালের’দো আনজানে’ সিনেমাটিতে। সুন্দরী রেখা ও অমিতাভের সেখানেই প্রথম আলাপ হয়। এরপরেই এই জুটির সিনেমার ঝড় আসতে থাকে। খুনপাসিনা, একবছর পরেই মিস্টার নটবর লাল এভাবেই পরপর আসতে থাকে। প্রেমের আগুনও বেড়ে চলেছিল তাদের এভাবেই,যেমনভাবে সিনেমার সংখ্যাগুলো বার ছিল।

১৯৭৮ সালের সুপার ডুপার হিট সিনেমা ‘মুকাদ্দার কা সিকান্দার’ এরপরে বিগ বি ‘র জীবন বেশ ভালই কাটছিল। নিজের রিয়েল লাইফের হিরোইন ও তার সাথে দুই সন্তানকেও পেয়ে গেছিল বিগ বি। প্রত্যেকটা জিনিসই বেশ সুন্দর ভাবে চলতে থাকলেও এক বিশেষ পরিচালকের চোখ পড়ে তার জীবনে। পরিচালক যশ চোপড়া রেখার চোখের কথা ভালোমতোই বুঝতে পেরেছিলেন। অভিনেত্রী রেখা যে অভিনয় করতে করতে সত্যিই বলিউডের বিগ বি-কে অত্যন্ত পছন্দ ও চাইতে শুরু করেছিলেন এই বিষয়টি পরিচালকের চোখকে এড়িয়ে যেতে পারেনি।

যশ চোপড়া নতুন একটি সিনেমা ‘সিলসিলা’ র সাথে ওই তিনজনকে একই ফ্রেমে এনেছিলেন। সৃষ্টি করেছিলেন এক নতুন দ্বন্দ্ব। এরপরে অমিতাভ-রেখাকে আর কখনো এক স্ক্রিনে দেখা যায়নি। পরিচালক যশ চোপড়ার সাথে আর কোন সিনেমায় কাজ করেননি অমিতাভ। তবে বহু বছর পরে ‘মহব্বতে’ দিয়ে তাদের আবার সুসম্পর্কের শুরু হয়। এরপরেই জয়া বচ্চন রেখাকে তার শ্বশুরবাড়িতেই আমন্ত্রণ জানান। সেদিন জয়া বচ্চন তাঁর অতিথিকে খুব ভালোভাবে আপ্যায়ন করেছিলেন তবে যাওয়ার পথে শুধু একটা কথাই বলেছিলেন যে “আমি কখনো অমিতাভকে ছেড়ে যাব না”।

রেখা ১৯৯০ সালে দিল্লীর প্রখ্যাত শিল্পপতি মুকেশ আগারওয়ালকে বিয়ে করেন। কিন্তু রেখা একবছরের মাথায় আমেরিকা গেলে তিনি সুইসাইড করে ফেলেন,সেই কারণটি আজও অজানা। তবে রেখা ও অমিতাভ এখনও একে ওপরের থেকে দূরেই রয়েছেন। কিন্তু আজও রেখা কখনও জয়ার মুখোমুখি হলে কোলাকুলি করতে ভোলেননি। ক্যামেরার সামনে ইমোশন কখনোই আসতে দেননি অভিনেত্রী রেখা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.