“আরে ছো ছো ছো ছো ক্যায়া শরম কি বাত… ভদ্দর ঘরকা লড়কি ভাগে ডেরাইভারকে সাথ…”— উত্তমকুমার ও মাধবী মুখোপাধ্যায় অভিনীত ‘ছদ্মবেশী’ সিনেমায় গানটি গেয়েছিলেন অনুপ ঘোষাল। তা মধ্যপ্রদেশের কোটিপতির জানার কথা নয়।

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

কিন্তু সিনেমার এই গানই যেন এখন তাঁর জীবনে ঘোর বাস্তব। ১৩ বছরের ছোট অটোচালকের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছে স্ত্রী, এমনই অভিযোগ নিয়ে পুলিশের শরণাপন্ন তিনি।

প্রথমে স্ত্রী নিখোঁজ হয়ে গিয়েছে বলে পুলিশের দ্বারস্থ হন তিনি। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নামে পুলিশ। তখনই ‘কেঁচো খুঁড়তে কেউটে’ প্রবাদের মতো অবস্থা হয়। জানা যায়, অটোচালকের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছেন কোটিপতির স্ত্রী।

তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে অটোচালকের নাম ইমরান। বয়স ৩২। কোটিপতির স্ত্রীর থেকে অন্তত ১৩ বছরের ছোট।

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

কোটিপতির স্ত্রীর কোনও জায়গায় যেতে হলে ইমরানের অটো করেই নাকি যেতেন। আবার বাড়িতেও ইমরান ছেড়ে দিতেন। সেখান থেকেই প্রেমে সূত্রপাত বলে সন্দেহ।

অভিযোগ, নিজের দেরাজে ৪৭ লক্ষ টাকা জমা রেখেছিলেন ইন্দোরের কোটিপতি ব্যবসায়ী। সেই টাকা নিয়েই অটোচালক প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়েছেন গৃহবধূ।

ইতিমধ্যেই, কোটিপতির স্ত্রী ও অটোচালকের খোঁজে তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। ইন্দোরেই ইমরানের বাড়ি। সেখানে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। ইমরানের এক বন্ধুর বাড়ি থেকে নাকি ৩৩ লক্ষ টাকা উদ্ধারও হয়েছে। দু’জনের মোবাইল ট্র্যাক করা হচ্ছে।

তা থেকেই জানা যাচ্ছে, খাণ্ডওয়া, জাভরা, উজ্জয়িনী, রতলামের মতো শহরে গিয়েছিলেন কোটিপতির স্ত্রী ও অটোচালক। তাঁদের মোবাইলের লোকেশন ট্রেস করেই জানতে পেরেছে পুলিশ। সেখানে স্থানীয় অফিসার পাঠিয়ে তল্লাশি চালানো হয়েছে। কিন্তু কোনও খোঁজ মেলেনি। আর কোথায় কোথায় তাঁরা যেতে পারেন, তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.