এবার আইপিএলে কলকাতার দীনেশ কার্তিক না মরগান কে হবে অধিনায়ক এই নিয়ে তুমুল আলোচনা সমলোচনা হয় কারণ,গত মরশুমে নেতৃত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন দীনেশ কার্তিক।

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

মরশুমের মাঝপথেই ক্যাপ্টেনশিপ তুলে দেন ইয়ন মরগ্যানের হাতে। কিন্তু কেন নেতৃত্ব ছেড়েছিলেন, তা-ই এবার খোলসা করলেন কার্তিক।

কেকেআর ওয়েবসাইটে পোস্ট করা এক ভিডিওয় কার্তিক বলে দিয়েছেন, “ মরগ্যানকে ক্যাপ্টেন্সির সুযোগ দেওয়া প্রয়োজন ছিল। আমরা সেই সময় ইতিমধ্যেই সাত ম্যাচ খেলে ফেলেছিলাম।

আরো সাত ম্যাচ বাকি ছিল। তাই আমাদের প্লে অফে ওঠার জন্য পর্যাপ্ত সুযোগ ছিল। যদি প্লে অফের দৌড় থেকে ছিটকে যাওয়ার পরে নেতৃত্ব ছাড়তাম, সেটা উচিত ‘হত না।”

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

গত আইপিএলে যে সাত ম্যাচ কার্তিক নেতৃত্ব দেন, তার মধ্যে কেকেআর চারটেতেই জিতেছিল। হেরেছিল তিনটে। সিএসকের বিরুদ্ধে জিতে ওঠার দিনেই কার্তিক টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে নেতৃত্ব ছাড়ার প্রসঙ্গ জানান।

তারপরে ১৫ অক্টোবর সরকারিভাবে নেতৃত্ব বদলের কথা ঘোষণা করা হয় কেকেআরের পক্ষ থেকে। ঠিক মুম্বই ম্যাচের আগে।

দীনেশ কার্তিক সেই ভিডিওয় আরো বলেছেন, “যে আড়াই বছর দলের নেতৃত্ব দিয়েছি, আমার মনে হয় ছেলেদের আস্থা অর্জন করতে পেরেছি। নেতা হিসেবে এই মূল্যায়ন ভীষণ জরুরি। ওঁরা আমার কাছে সততার জন্য পুরোপুরি ভরসা করতে পারে।

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

মর’গ্যানও এই বিষয়ে অনেকটা আমার মতই। এটা পুরো প্রক্রিয়া আরো সহজ করে দেয়। দলের সকলে জানত, আমরা দুজন দলকেই সবার আগে প্রাধান্য দি-ই। সেই কারণে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।”

মরগ্যান নেতৃত্ব বদল নিয়ে বলেন, “আমাকে নেতৃত্বের সুযোগ দেওয়ায় আনন্দিত। আমাদের নেতৃত্বের রূপান্তর পর্ব খুব মসৃণভাবে হয়েছিল। বাজ (ম্যাককুলাম) এবং অভিষেক নায়ার দলের সকলকে এই বার্তা পৌঁছে দিতে দুরন্ত উদ্যোগ নেয়। ওদের সঙ্গে কার্তিক এবং দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের এত ভাল সম্পর্ক যে গোটা পর্ব একদম বাধাবিঘ্ন ছাড়াই হয়েছিল। আমি এই নিয়ে বেশি কিছু ভাবিইনি।”

এরপরে মরগ্যানের সংযোজন, “এই সিদ্ধান্ত মোটেই আবেগের বশে নেওয়া হয়নি। বরং খুব যুক্তিযুক্তভাবে নিঃস্বার্থ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে নেওয়া। টুর্নামেন্টের মাঝপথে এভাবে নেতৃত্ব ছেড়ে দিতে সাহস লাগে।”

blank
blank
blank
blank
blank
blank
blank

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.